উপবৃত্তির টাকার অঙ্ক বাড়ানো হোক

মো. বিল্লাল হোসেন

প্রকাশ: ২৫ অক্টোবর ২০১৯, ০৫:০৮ পিএম

একজন মেধাবী শিক্ষার্থীর যথাযথ মূল্যায়ন না হলে সে কি আসলেই মেধাবী থাকে? না থাকাটাই স্বাভাবিক। মেধার যথাযথ মূল্যায়নই মেধাবীকে আরো ভালো কিছু করতে অনুপ্রাণিত করে। প্রতিষ্ঠার ৪১ বছর পেরিয়ে গেলেও ইসলামী বিশ্ববিদ্যালয়ে মেধাবী শিক্ষার্থীদের উপবৃত্তির টাকার অঙ্ক বাড়েনি। এখনো প্রতি মাসে মাত্র ১২০ টাকা করে বৃত্তি দেওয়া হয় শিক্ষার্থীকে। যেখানে জীবনযাত্রার ব্যয় বেড়েছে কয়েকগুণ, সেখানে বৃত্তির টাকা বাড়েনি। আবার যে টাকাটা দেওয়া হয়, সেটাও দেওয়া হয় অনেক দেরিতে। যেমন এই বছর দ্বিতীয় বর্ষের ফলাফলের ওপর ভিত্তি করে তৃতীয় বর্ষের বৃত্তি দেওয়া হয়েছে কিছুদিন আগে। অথচ আমার দ্বিতীয় বর্ষের পড়াশোনা শেষ হয়েছে ২০১৬ সালে। জাহাঙ্গীরনগর বিশ্ববিদ্যায় একজন শিক্ষার্থীকে প্রতি মাসে ৫০০ টাকা দেওয়া হয় উপবৃত্তি হিসেবে। সুতরাং উপর্যুক্ত বিষয়ে ব্যবস্থা গ্রহণের জন্য সংশ্লিষ্ট কর্তৃপক্ষকে বিশেষভাবে অনুরোধ করছি।

মো. বিল্লাল হোসেন
শিক্ষার্থী, ইসলামী বিশ্ববিদ্যালয়, কুষ্টিয়া।

প্রধান সম্পাদক: ইলিয়াস উদ্দিন পলাশ | প্রকাশক: নাহিদা আকতার জাহেদী

অনলাইন সম্পাদক: আরশাদ সিদ্দিকী | ঠিকানা: ১০/২২ ইকবাল রোড, ব্লক এ, মোহাম্মদপুর, ঢাকা-১২০৭

Design & Developed By Root Soft Bangladesh