স্পেনে করোনা আক্রান্তের সংখ্যা ১০ লাখ ছাড়ালো

পশ্চিম ইউরোপের প্রথম দেশ হিসেবে স্পেনে মহামারি করোনাভাইরাসে আক্রান্ত রোগীর সংখ্যা ১০ লাখ ছাড়িয়েছে।

সাড়ে চার কোটির অধিক জনসংখ্যার দেশটি বর্তমানে নতুন করে করোনার বিস্তার রোধে লড়াই করছে।

জরিপ পর্যালোচনাকারী সংস্থা ওয়ার্ল্ডোমিটারের আজ বৃহস্পতিবার (২২ অক্টোবর) বাংলাদেশ সময় বেলা ১০টার তথ্য অনুসারে, করোনা মহামারি ছড়িয়ে পড়ার পর থেকেই এখন পর্যন্ত দেশটিতে কভিড-১৯ আক্রান্ত রোগীর সংখ্যা ১০ লাখ ৪৬ হাজার ৬৪১ জনে দাঁড়িয়েছে। গত ২৪ ঘণ্টায় দেশটিতে নতুন করে আরো ১৬ হাজার ৯৭৩ জনের করোনা শনাক্ত হয়েছে।

স্পেনের স্বাস্থ্য মন্ত্রণালয় জানিয়েছে, দেশটিতে করোনাভাইরাসে এখন পর্যন্ত মারা গেছেন ৩৪ হাজার ৩৬৬ জন।

বিশেষজ্ঞরা বলছেন, অধিকাংশ দেশেই করোনা আক্রান্ত ও মৃত্যুর বাস্তব সংখ্যা আরো অনেক বেশি। অপর্যাপ্ত পরীক্ষা, উপসর্গহীন অবস্থার কারণে কর্তৃপক্ষ প্রকৃত সংখ্যা নির্ণয় করতে পারছে না।

এদিকে ভাইরাস সম্পর্কে কর্মপরিকল্পনা নির্ধারণে আজ বৈঠকে বসবেন স্বাস্থ্যমন্ত্রী সালভাদোর ইলা ও অঞ্চলগুলোর স্বাস্থ্য প্রধানরা। রাতের পার্টিগুলোতে নিষেধাজ্ঞা জারির সিদ্ধান্ত আসতে পারে।

এর আগে গত মঙ্গলবার ইলা বলেছিলেন, এটা পরিষ্কার যে খুব কঠিন সময় আসছে।

ওয়ার্ল্ডোমিটারের সর্বশেষ তথ্য অনুসারে, বৈশ্বিক এ মহামারিতে আক্রান্তের হার দ্রুত বৃদ্ধি অব্যাহত থাকায় এ সংখ্যা বেড়ে হয়েছে চার কোটি ১৪ লাখ ৮৬ হাজার ৪৩২ জন। আর বিশ্বব্যাপী করোনায় মৃতের সংখ্যা বেড়ে দাঁড়িয়েছে ১১ লাখ ৩৬ হাজার ৩৩৫ জনে। ভাইরাসটিতে আক্রান্তদের মধ্যে এ পর্যন্ত সুস্থ হয়েছে তিন কোটি নয় লাখ ১৩ হাজার ৫২১ জন। 

করোনাভাইরাসে সবচেয়ে ক্ষতিগ্রস্ত হয়েছে মার্কিন যুক্তরাষ্ট্র, দক্ষিণ এশিয়ার দেশ ভারত ও ল্যাটিন আমেরিকার দেশ ব্রাজিল। মোট করোনা আক্রান্তের অর্ধেকের বেশি এই তিন দেশে। সবচেয়ে বেশি আক্রান্ত ও মৃতের সংখ্যার দিক দিয়ে বিশ্বে প্রথমে রয়েছে যুক্তরাষ্ট্র। এখনো ব্যাপক হারে সেখানে করোনার বিস্তার হচ্ছে। দ্রুত আক্রান্তের পাশাপাশি মৃত্যুও থেমে নেই। দেশটিতে করোনায় আক্রান্ত ৮৫ লাখ ৮৪ হাজার ৮১৯ জন ও ২ লাখ ২৭ হাজার ৪০৯ জন মৃত্যুবরণ করেছেন।

বিশ্বের দ্বিতীয় জনবহুল দেশ ভারতে মোট আক্রান্ত ৭৭ লাখ ৬ হাজার ৯৪৬ জন এবং মারা গেছেন ১ লাখ ১৬ হাজার ৬৫৩ জন। তৃতীয় সর্বোচ্চ ক্ষতিগ্রস্ত দেশ ব্রাজিলে মোট শনাক্ত রোগী ৫৩ লাখ ৬৪৯ জন এবং মৃত্যু হয়েছে ১ লাখ ৫৫ হাজার ৪৫৯ জনের।

মন্তব্য করুন

Epaper

সাপ্তাহিক সাম্প্রতিক দেশকাল ই-পেপার পড়তে ক্লিক করুন

Logo

© 2020 Shampratik Deshkal All Rights Reserved. Design & Developed By Root Soft Bangladesh