সাত মাস পর প্রাণের ছোঁয়া চলচ্চিত্রাঙ্গনে

করোনার কারণে প্রায় সাত মাস বন্ধ থাকার পর খুলেছে সিনেমা হল। প্রথম দিনেই সিনেমাপ্রেমীদের পদচারণায় যেনো প্রাণের ছোঁয়া ফিরে পেলো প্রেক্ষাগৃহগুলো। তাই দর্শকহীনতায় লোকসানের আশঙ্কা থেকে কিছুটা যেনো মুক্তি মিললো ঢাকাই চলচ্চিত্রের।

তবে পূর্বপ্রস্তুতি না থাকায় এবং মানসম্মত সিনেমার অভাবে দেশের অধিকাংশ হলের পর্দা উঠেনি। মূলধারার কয়েকটি চলচ্চিত্র মুক্তির অপেক্ষায় থাকলেও ঝুঁকি নেননি প্রযোজকরা। করোনার কারণে দর্শক স্বল্পতায় লোকসান গুনতে চান না তারা। 

তাই বলাকা, সিনেওয়ার্ল্ড, জোনাকি, স্টার সিনেপ্লেক্স, মধুমিতাসহ ঢাকার বেশ কিছু প্রেক্ষাগৃহ এখনো খোলেনি। 

ঢাকার মতিঝিল এলাকায় অবস্থিত মধুমিতা সিনেমা হল খোলায় বিষয়ে ইফতেখার উদ্দিন নওশাদ জানান, ভালো মানের সিনেমা না পেলে তারা সিনেমা হল খুলবেন না। অন্যদিকে, নিউমার্কেট এলাকার বলাকা সিনেওয়ার্ল্ডের পক্ষ থেকে জানানো হয়, যেহেতু এখনো দেশের শিক্ষাপ্রতিষ্ঠান খোলা হয়নি। সেহেতু তারা সিনেমা হল খোলার চিন্তা করছেন না। যেহেতু তাদের বেশির ভাগ দর্শকই শিক্ষার্থীরা, সেহেতু এমন অবস্থায় হল খুললে লোকসানের মুখে পড়তে হবে তাদের। 

এদিকে, স্টার সিনেপ্লেক্সের ৩টি সিনেমা হল ২৩ অক্টোবর থেকে খুলছে বলে জানিয়েছেন প্রতিষ্ঠানটির চেয়ারম্যান মাহবুব রহমান।

তবে পরিস্থিতিতে প্রথম দিনেই গতকাল শুক্রবার ঢাকাসহ দেশের ৩৯টি প্রেক্ষাগৃহে মুক্তি পায় ‘সাহসী হিরো আলম’ ছবিটি। প্রেক্ষাগৃহ খোলার প্রথম দিনে ঢাকার তাঁতিবাজারের চিত্রামহলে দর্শক ছিল হাতে গোনা।

মন্তব্য করুন

Epaper

সাপ্তাহিক সাম্প্রতিক দেশকাল ই-পেপার পড়তে ক্লিক করুন

Logo

© 2020 Shampratik Deshkal All Rights Reserved. Design & Developed By Root Soft Bangladesh