রোববার,  ২৫ আগস্ট ২০১৯  | সময় লোডিং...
প্রকাশ : ০৩ আগস্ট ২০১৯, ১৪:৩৭:২৯

বাকলাই ঝর্ণার নয়নাভিরাম রূপ

ডেস্ক রিপোর্ট
অপরুপ সৌন্দর্যে ঘেরা বাংলাদেশের বান্দরবান জেলা। বান্দরবানে রয়েছে অনেক পর্যটন কেন্দ্র। রয়েছে পাহাড় ও ঝর্ণা। ভ্রমণ পিপাসুরা বান্দরবানের প্রতিটি পর্যটন কেন্দ্র সম্পর্কে সম্যক ধারণা রাখলেও অনেকেই বাকলাই ঝর্ণা সম্পর্কে জানে না।
বাকলাই ঝর্ণা সম্ভবত দেশের সবচেয়ে উঁচু ঝর্ণা। বান্দরবানের পাহাড়ের গভীরে বাকলাই গ্রামে অবস্থিত এই ঝর্ণাটি প্রায় ৩৮০ ফুট উঁচু। কেওক্রাডং থেকে তাজিনডং যাওয়ার পথে ঝর্ণাটির অপরূপ সৌন্দর্যে বিমোহিত হতে পারবেন। পথে দেখতে পাবেন ছোট ছোট নদী এবং নয়নাভিরাম দৃশ্য।
অনেক আগে থেকেই বাকলাই ঝর্ণায় অনেক ট্রেকাররা ক্যাম্পিং করতে পারে। পাশেই রয়েছে আর্মি ক্যাম্প। যার কারণে ভয়ের কোনো কারণ নেই। নিরাপদে অবস্থান করা যায়।  এই ঝর্ণাটি দেখতে চাইলে আপনাকে হাতে পাঁচ থেকে সাতদিন রাখতে হবে। তবে আপনি কতটা হাঁটতে পারেন তাঁর উপর নির্ভর করছে এখানে আসতে কতদিন লাগতে পারে। থানচি এবং রুমা থেকে আপনি এই ঝর্ণাটি দেখতে আসতে পারবেন।
দশ থেকে বারো বছর পূর্বে একদল সাহসী পর্যটক বান্দরবানের গভীরে ভ্রমণ করতে যায় এবং প্রায় একমাসের অধিক সময় বান্দরবানের পাহাড় খনন করে। এই ভ্রমনের সময় তারা বাকলাই ঝর্ণাটি উপর থেকে আবিষ্কার করে। যেহেতো তারা ঝর্ণাটি সামনে থেকে দেখেনি তাই এটির উচ্চতা সম্পর্কে তারা অবগত ছিল না।
পরবর্তীতে আরেক দল অভিযাত্রী ঝর্ণা কাছে একটি স্থানে যায় এবং ঝর্ণার পানি পরার শব্দ শুনতে পায়। ঝর্ণার পানি পরার প্রচণ্ড শব্দ শুনে তারা শব্দের উৎস আবিষ্কারের জন্য অগ্রসর হয় এবং বাকলাই ঝর্ণাটি আবিষ্কার করে। আর এভাবেই সবার সামনে চলে আসে বাকলাই ঝর্ণা। এমনকি আজও খুব কম পর্যটকই ঝর্ণাটি দেখতে যান।
 
যাওয়ার উপায়
বাকলাই ঝর্ণার নয়নাভিরাম সৌন্দর্যে মুগ্ধ হতে হলে প্রথমে আপনাকে যেতে হবে বান্দরবান।  বাংলাদেশের প্রায় সব জেলা থেকেই বান্দরবানে বাস চলাচল করে। নন এসি বাসে ভ্রমণ করলে ঢাকা থেকে বান্দরবানে যেতে খরচ হবে প্রায় ৫৫০ টাকা। এসব বাস সাধারণত রাতের বেলা ছেড়ে যায় তবে অন্য সময়েও বাস ছাড়তে পারে। ঢাকা থেকে সড়কপথে বান্দরবানে যেতে প্রায় ৭ ঘণ্টা সময় লাগবে।
বান্দরবান থেকে বাস অথবা চান্দের গাড়িতে করে প্রায় সাড়ে চার ঘণ্টায় প্রায় ৭৯ কিলোমিটার দূরে অবস্থিত থানচিতে পৌছাতে পারবেন। থানচি বাজার থেকে বাকলাই ঝর্ণায় যেতে কয়েক ঘণ্টা সময় লাগবে এবং এসময় আপনাকে বেশকিছু পাড়া অতিক্রম করতে হবে যেমনঃ টুটংপাড়া, বোর্ডিং হেডম্যানপাড়া, কাইতনপাড়া ইত্যাদি। ঝর্ণার উপরে উঠতে চাইলে প্রায় এক ঘণ্টা সময় লাগবে।

 

এই পাতার আরো খবর
সর্বশেষ সংবাদসর্বাধিক পঠিত

সম্পাদক: ইলিয়াস উদ্দিন পলাশ

প্রকাশক: নাহিদা আকতার জাহেদী

১০/২২ ইকবাল রোড, ব্লক এ, মোহাম্মদপুর, ঢাকা-১২০৭

Powered by orangebd.com