ভারতের সিয়াচেনে তুষারধসে সৈন্যসহ মৃত ৬

সিয়াচেন হিমবাহ

সিয়াচেন হিমবাহ

ভারত শাসিত কাশ্মীরের সিয়াচেন হিমবাহের উত্তরাংশে ভয়াবহ তুষারপাতে চার সেনা সদস্যসহ ছয়জনের মৃত্যু হয়েছে।

ওই দুইজন সেনাদের সহযোগী হিসেবে কুলির কাজ করতেন। এছাড়া আহত হয়েছেন আরো দুইজন। এদের মধ্যে এক সেনার জখম গুরুতর।

সিয়াচেনে গতকাল সোমবার দুপুর সাড়ে ৩টার দিকে ভয়াবহ তুষারধসের কবলে পড়েন ভারতীয় সেনাবাহিনীর জওয়ানরা। ভূপৃষ্ট থেকে প্রায় ১৮ হাজার ফুট উচ্চতায় নর্দান গ্লেসিয়ারে এই দুর্ঘটনা ঘটেছে। আটজনের একটি দল যখন টহল দিচ্ছিল তখন একটি বিশাল তুষারের স্তূপ ধেয়ে আসে। এর তলায় চাপা পড়ে যান ওই দলের সদস্যরা।

দীর্ঘ কয়েক ঘণ্টার চেষ্টায় তুষারের স্তূপের ভিতর থেকে আটজনকে উদ্ধার করেন জওয়ানরা। এর মধ্যে গুরুতর আহত সাতজনকে হেলিকপ্টারে করে নিকটবর্তী সেনা হাসপাতালে নিয়ে যাওয়া হয়। চিকিৎসকরা আপ্রাণ চেষ্টা করলেও শেষরক্ষা হয়নি। হাসপাতালে চিকিৎসাধীন অবস্থায় চার জওয়ান ও তাদের দুই সহযোগী কুলির মৃত্যু হয়। তাদের মৃত্যু কারণ হিসেবে এক্সট্রিম হাইপোথারমিয়ার কথা উল্লেখ করা হয়েছে।

ছবি: বিবিসি

হাসপাতাল সূত্রে খবর, বরফের নীচে চাপা পড়ায় ‘হাইপোথার্মিয়া’য় আক্রান্ত হন সবাই। এই রোগে শরীরের তাপমাত্রা দ্রুত নামতে থাকে। শরীরে যে হারে তাপ উৎপন্ন হয়, তার চেয়ে দ্রুতগতিতে নামতে থাকে ঠান্ডায়। এছাড়া ফ্রস্টবাইটও (অতিরিক্ত ঠান্ডায় শরীরে ক্ষত হওয়া) ছিল সবার। সেই কারণেই অনেক চেষ্টা করেও সেনা জওয়ান ও মালবাহকদের বাঁচানো যায়নি। 

কারাকোরাম রেঞ্জে ২০ হাজার ফুট উঁচুতে সিয়াচেন হিমবাহ। এই অঞ্চলকেই বিশ্বের সর্বোচ্চ যুদ্ধক্ষেত্র বলে ধরা হয়। তুষারধস, পাথরধস এখানকার নিত্যনৈমিত্যিক ঘটনা। শীতকালে তাপমাত্রা মাইনাস ৬০ ডিগ্রি সেলসিয়াস পর্যন্ত নেমে যায়।- এই সময়

মন্তব্য করুন

সাম্প্রতিক দেশকাল ই-পেপার

© 2019 Shampratik Deshkal All Rights Reserved. Design & Developed By Root Soft Bangladesh