শনিবার,  ১৭ আগস্ট ২০১৯  | সময় লোডিং...
প্রকাশ : ০২ আগস্ট ২০১৯, ২১:০৭:৫৬

প্রাথমিক শিক্ষা ও প্রাথমিক শিক্ষকরা এত অবহেলিত?

শিক্ষার ভিত্তি স্থাপনকারী হিসেবে প্রাথমিক শিক্ষকদের বেতন ও পদমর্যাদা হওয়া উচিত অন্য পেশাজীবীদের থেকে বেশি। কিন্তু বেতন-পদমর্যাদা তাঁদের সমযোগ্যতার অন্যদের থেকেও অনেক কম। প্রাথমিকের একজন সহকারী শিক্ষকের নিয়োগ যোগ্যতা স্নাতক। নিয়োগ পাওয়ার পরে প্রত্যেক শিক্ষককে ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয়ের আইইআর ডিপার্টমেন্টের অধীনে বাধ্যতামূলকভাবে দেড় বছর মেয়াদি ডিপ্লোমা ইন প্রাইমারি এডুকেশন কোর্স সম্পন্ন করতে হয়। 
স্নাতক ও একইসঙ্গে ডিপ্লোমাধারী হয়েও একজন প্রাথমিক সহকারী শিক্ষক বেতন পান ১৪তম গ্রেডে। অথচ এসএসসি অথবা এইচএসসির পরে ডিপ্লোমা সম্পন্ন করে অন্য সকল ডিপ্লোমাধারী বেতন পাচ্ছেন ১০ম গ্রেডে। এটা কি বৈষম্য নয়? 
প্রাথমিকের সহকারী শিক্ষকরা দীর্ঘদিন ধরে ১১তম গ্রেডের জন্য আন্দোলন করে এলেও এটা নিয়ে একের পর এক তালবাহানা ও সময়ক্ষেপণ চলছে। বিসিএস নন-ক্যাডার থেকে আগত অন্য পেশাজীবীরা সরাসরি ১০ম গ্রেডে নিয়োগ পেলেও প্রাথমিকে যোগদান করা প্রধানশিক্ষকরা পাচ্ছেন ১১তম গ্রেডে। প্রাথমিক শিক্ষা যদি সত্যিকারের শিক্ষার ভিত্তি হয় ও শিক্ষকরা যদি মানুষ গড়ার আসল কারিগর হন, তাহলে কেন প্রাথমিক শিক্ষা ও প্রাথমিক শিক্ষকরা এত অবহেলিত? এ ব্যাপারে ঊর্ধ্বতন মহলের দৃষ্টি আকর্ষণ করছি।
 
মাহফিজুর রহমান মামুন
প্রাথমিক শিক্ষক
বোদা, পঞ্চগড়।
এই পাতার আরো খবর
সর্বশেষ সংবাদসর্বাধিক পঠিত

সম্পাদক: ইলিয়াস উদ্দিন পলাশ

প্রকাশক: নাহিদা আকতার জাহেদী

১০/২২ ইকবাল রোড, ব্লক এ, মোহাম্মদপুর, ঢাকা-১২০৭

Powered by orangebd.com