শনিবার,  ১৭ আগস্ট ২০১৯  | সময় লোডিং...
প্রকাশ : ১৫ জুলাই ২০১৯, ১৫:৪৬:৪৬

নিবন্ধন হলেই অনলাইনে শৃঙ্খলা ফিরবে: তথ্যমন্ত্রী

নিজস্ব প্রতিবেদক
নিবন্ধন সম্পন্ন হলে অনলাইন গণমাধ্যমগুলোর শৃঙ্খলা প্রতিষ্ঠিত হবে বলে মন্তব্য করেছেন তথ্যমন্ত্রী ড. হাছান মাহমুদ।
তিনি বলেন, ‘বিদ্যমান অনলাইনগুলো রেজিস্ট্রেশনের আওতায় আনার সিদ্ধান্ত নেওয়া হয়েছে। এখন পর্যন্ত আট হাজারেরও বেশি দরখাস্ত জমা পড়েছে। রেজিস্ট্রেশন হয়ে গেলে এই সেকশনে শৃঙ্খলা ফিরে আসবে।’
সচিবালয়ে জেলা প্রশাসক সম্মেলনের দ্বিতীয় দিন আজ সোমবার তথ্য ও সংস্কৃতি মন্ত্রণালয়ের অধিবেশনের পর ব্রিফিংকালে সাংবাদিকদের তিনি এ কথা বলেন। 
জেলা প্রশাসকদের সঙ্গে নিউ মিডিয়া ও সোশ্যাল মিডিয়ার চ্যালেঞ্জ নিয়ে আলোচনা হয়েছে উল্লেখ করে তথ্যমন্ত্রী বলেন, ‘এই চ্যালেঞ্জ শুধু বাংলাদেশের নয়, সারা বিশ্বের। বাংলাদেশ এই চ্যালেঞ্জের মধ্যেই এগিয়ে যাচ্ছে।
তিনি বলেন, ‘ডিসি সম্মেলনে নিউ মিডিয়া এবং এর চ্যালেঞ্জের প্রসঙ্গ উঠে এসেছে। অনলাইন মিডিয়ার ক্ষেত্রে শৃঙ্খলার বিষয় সেখানে আলোচিত হয়েছে। আমরা ইতোমধ্যে সব অনলাইনকে নিবন্ধনের আওতায় আনার জন্য দরখাস্ত আহ্বান করেছি। আজ ১৫ জুলাই দরখাস্ত করার শেষ দিন। এ পর্যন্ত আমাদের কাছে আট হাজারের বেশি দরখাস্ত জমা পড়েছে।’
তিনি আরও বলেন, ‘আট হাজার অনলাইন বাংলাদেশের প্রেক্ষাপটে কতটুকু যৌক্তিক সে প্রসঙ্গটুকু অবশ্যই আসে। আমরা এগুলো পরীক্ষা-নিরীক্ষা করে যেগুলো আসলে প্রয়োজন আছে, যেগুলো অনলাইন হিসেবে সত্যিকার অর্থে কাজ করতে পারবে বা করার সক্ষমতা রাখে বা অন্য কোনও উদ্দেশ্যে দরখাস্ত করা হয়নি সেগুলোকে আমরা নিবন্ধনের আওতায় আনব।’
হাসান মাহমুদ বলেন, ‘আরেকটি প্রসঙ্গ এসেছে জেলায় জেলায় তথ্য ভবন নির্মাণ করা। তথ্য ভবনের সাথে যাতে একটি মিলনায়তন থাকে, যেখানে অনুষ্ঠান করা যাবে, সিনেমা প্রদর্শন করা যাবে। এ লক্ষ্যে ইতোমধ্যে আমরা একটি প্রকল্প গ্রহণ করেছি, ২৭টি জেলায় কমপ্লেক্স নির্মাণ প্রকল্প গ্রহণ করেছি। আমরা সব জেলায় করতে চাই, এজন্য ডিসি মহোদয়দের স্থান নির্ধারণের জন্য বলা হয়েছে।’ 
ক্যাবল নেটওয়ার্ক পরিচালনা আইন বাস্তবায়নে মোবাইল কোর্টের অভিযান আরো জোরদার করতে জেলা প্রশাসকদের নির্দেশ দেন তথ্যমন্ত্রী।
মন্ত্রিপরিষদ সচিব মোহাম্মদ শফিউল আলমের সভাপতিত্বে অধিবেশনে তথ্য সচিব আবদুল মালেক, সংস্কৃতি মন্ত্রণালয়ের ভারপ্রাপ্ত সচিব ডক্টর মোহাম্মদ আবু হেনা মোস্তফা কামাল, বাংলাদেশ টেলিভিশনের মহাপরিচালক এস এম হারুন আর রশিদ, বাংলাদেশ বেতারের মহাপরিচালক নারায়ণ চন্দ্র শীল এবং তথ্য ও সংস্কৃতি মন্ত্রণালয়ের ঊর্ধ্বতন কর্মকর্তারা উপস্থিত ছিলেন।
এই পাতার আরো খবর
সর্বশেষ সংবাদসর্বাধিক পঠিত

সম্পাদক: ইলিয়াস উদ্দিন পলাশ

প্রকাশক: নাহিদা আকতার জাহেদী

১০/২২ ইকবাল রোড, ব্লক এ, মোহাম্মদপুর, ঢাকা-১২০৭

Powered by orangebd.com