রোববার,  ২৫ আগস্ট ২০১৯  | সময় লোডিং...
প্রকাশ : ২৬ জুলাই ২০১৯, ১২:৫৯:৪৭

দ্বৈরথ

চাণক্য বাড়ৈ
 
তোমার আগুন ফুল ও ফণা হয়ে দুলে ওঠে-- ব্যাখ্যার অতীত এই সুবাস আর ছোবলের দ্বৈরথে দাঁড়িয়ে ভাবি, উপলব্ধির এক অদৃশ্য ক্যানোলা দিয়ে কী নিপুণা, ঢুকিয়ে দিচ্ছ প্রেম-- বইয়ে দিচ্ছ অপাপবিদ্ধ যৌনতার ধারা-- প্রতিটি মুহূর্তে আমার কেবলই তোমাকে ইচ্ছে করে-- অনিবার্য ইচ্ছে প্রবাহিত হতে থাকে কল্লোলিত ধমনীর ভেতর--
 
আর দেখো, প্রতিদিন মস্তিষ্কের গহ্বরে জমা হচ্ছে বিষণ্ন ঝিঁঝিঁ ডেকে ওঠা দিন-- কে জানে, তার অনুবাদ-অযোগ্য সুর আমাকে কোন অজ্ঞাতলোকে নিয়ে যেতে চায়-- সেই অজ্ঞতার ফাঁকে ঢুকে পড়ি মোহের বাগানে-- এক মৃণ্ময়  পাথরের ওপর দাঁড়িয়ে পান করি মধু-- গলা দিয়ে নেমে যায় বিষ-- ভাবি, দ্বৈত সত্তা তবে তোমারই আরেক নাম...
 
বলো, কোন অনির্ণিত অধ্যবসায়ে আয়ত্ত করেছ এই কলা-- অবিসংবাদিত বিদ্যা-- কেবল তুমিই জানো, কখন ফুল হতে হয়, কখন ফণা--
এই পাতার আরো খবর
সর্বশেষ সংবাদসর্বাধিক পঠিত

সম্পাদক: ইলিয়াস উদ্দিন পলাশ

প্রকাশক: নাহিদা আকতার জাহেদী

১০/২২ ইকবাল রোড, ব্লক এ, মোহাম্মদপুর, ঢাকা-১২০৭

Powered by orangebd.com