শনিবার,  ১৭ আগস্ট ২০১৯  | সময় লোডিং...
প্রকাশ : ১৫ জুলাই ২০১৯, ১১:০৪:০১
বর্ণবাদী টুইট

কংগ্রেসের ৪ নারী সদস্যকে নিজ দেশে ফিরতে বললেন ট্রাম্প

আন্তর্জাতিক ডেস্ক
যুক্তরাষ্ট্রের ডেমোক্রেটিক পার্টির চার নারী কংগ্রেস সদস্য  সম্পর্কে বিদ্বেষমূলক টুইট করায় দেশটির প্রেসিডেন্ট ডোনাল্ড ট্রাম্পের বিরুদ্ধে বর্ণবাদী আচরণের অভিযোগ উঠেছে।
তিনি দাবি করেন, ওই নারীরা এমন দেশ থেকে এসেছেন যেখানকার সরকার সম্পূর্ণ ব্যর্থ। তিনি তাদের নিজ দেশে ফিরে যাওয়ার পরামর্শ দিয়েছেন বলে জানায় বিবিসি।
এই চারজন কংগ্রেস সদস্য হলেন আলেকজান্দ্রিয়া ওকাসিও-করতেস, রাশিদা তালিব, আইয়ানা প্রেসলি ও ইলহান ওমর। এঁদের মধ্যে প্রথম তিনজনের জন্ম যুক্তরাষ্ট্রে, একমাত্র ওমরই সোমালিয়া থেকে এসেছেন।
কংগ্রেসের প্রতিনিধি পরিষদের স্পিকার ন্যান্সি পেলোসির সঙ্গে এই চারজনের কিছুটা বচসা হওয়ার ঘটনার পরের সপ্তাহে এমন টুইট করলেন মার্কিন প্রেসিডেন্ট।
এক সাথে করা তিনটি টুইটের মাধ্যমে প্রেসিডেন্ট ট্রাম্প কংগ্রেসের চার নারীর বিরুদ্ধে যুক্তরাষ্ট্র ও প্রেসিডেন্ট ট্রাম্পকে 'ভয়ঙ্করভাবে' সমালোচনা করার অভিযোগ তুলেছেন।
তিনি গতকাল রবিবার টুইটারে লিখেছেন, ‘খুবই অবাক লাগে দেখতে যখন 'প্রগতিশীল' ডেমোক্র্যাট কংগ্রেসের নারী সদস্যরা, যারা এমন দেশ থেকে এসেছেন যেখানে তাদের সরকার সম্পূর্ণ ব্যর্থ, বিশ্বের মধ্যে সবচেয়ে দুর্নীতিগ্রস্ত এবং সবচেয়ে অদক্ষ, বিশ্বের শ্রেষ্ঠ এবং সবচেয়ে ক্ষমতাশালী দেশ যুক্তরাষ্ট্রে এসে এখানকার মানুষদের বলছে কীভাবে আমাদের সরকার পরিচালনা করতে হবে। তারা কেন তাদের নিজেদের অপরাধপ্রবণ দেশে ফিরে গিয়ে তাদের পরিস্থিতির উন্নয়ন করে না! তারপর ফিরে এসে আমাদের জানালেই পারেন যে কীভাবে সে কাজ করলেন তারা।’
ট্রাম্পের এমন মন্তব্যের কড়া সমালোচনা করে পেলোসি বলেছেন, ট্রাম্পের মন্তব্যটি 'জেনোফোবিক' (বিদেশিদের সম্পর্কে অহেতুক আতঙ্ক তৈরি করার প্রবণতা)। তাঁর একমাত্র উদ্দেশ্য আমেরিকাকে বিভক্ত করা। তবে আমাদের বৈচিত্র্যই আমাদের শক্তি এবং একতাই আমাদের ক্ষমতা। ’
ট্রাম্পের এই মন্তব্যে ডেমোক্র্যাটরা তো বটেই, রিপাবলিকান রাজনীতিবিদদেরও অনেককেই সমালোচনা করতে দেখা গেছে। সাবেক রিপাবলিকান শীর্ষ নেতা জন ম্যাককেইনের মেয়ে মেগান ম্যাককেইন বলেন, ‘এই মন্তব্য বর্ণবাদী। এই দেশে আমরা যাদের একবার স্বাগত জানিয়েছি, তাদের আবার ফিরে যেতে বলি না।’ মেগান নিজেও একজর রিপাবলিকান সমর্থক কলামিস্ট। 
সম্প্রতি ডেমোক্রেটিক পার্টির ভেতর নীতিগত প্রশ্নে এই চারজন প্রগতিশীল নারী সদস্যের সঙ্গে পেলোসি ও দলীয় নেতৃত্বের বড় রকমের মতভেদ দেখা দিয়েছিল। ট্রাম্পের টুইটের ফলে তাঁরা পুনরায় ঐক্যবদ্ধ হওয়ার সুযোগ পেয়েছেন।
ট্রাম্প গতকাল রবিবার থেকেই যুক্তরাষ্ট্রের ১০টি শহরে বৈধ কাগজপত্রবিহীন অভিবাসীদের বহিষ্কারের উদ্দেশে ব্যাপক অভিযান শুরুর ঘোষণা দিয়েছেন। 
এই পাতার আরো খবর
সর্বশেষ সংবাদসর্বাধিক পঠিত

সম্পাদক: ইলিয়াস উদ্দিন পলাশ

প্রকাশক: নাহিদা আকতার জাহেদী

১০/২২ ইকবাল রোড, ব্লক এ, মোহাম্মদপুর, ঢাকা-১২০৭

Powered by orangebd.com