‘সুপারওম্যান হতে পুরুষকে হারানোর দরকার নেই’

অ্যাঞ্জেলিনা জোলি

অ্যাঞ্জেলিনা জোলি

হলিউড সুপারস্টার অ্যাঞ্জেলিনা জোলির মতে, নারীর নিজের শক্তি দেখানোর উপায় হল পুরুষদের সঙ্গে কাঁধে কাঁধ মিলিয়ে কাজ করা, তাদের সঙ্গে ঝগড়া করা নয়। এই পথেই পৃথিবীটা আরো সুন্দর হবে।

এই অভিনেত্রী-ফিল্মমেকার-অ্যাক্টিভিস্ট ডিজনির সাম্প্রতিক ছবি ‘ম্যালফিসেন্ট: মিসট্রেস অব ইভেল’-এ ভিলেনের চরিত্রে অভিনয় করছেন। 

এক সাক্ষাৎকারে বলেন জোলি বলেন, ‘যখনই কোনো ছবি দেখি যেখানে বলা হয় ‘এই নারী শক্তিশালী’ তখনই দেখি হয় সেই নারীদের পুরুষকে হারাতে হচ্ছে বা সেই পুরুষের সমকক্ষ হতে হচ্ছে বা সেই নারীর কোনো পুরুষকে দরকারই পড়ছে না।’

‘ম্যালফিসেন্ট’-এ কেন্দ্রীয় চরিত্রকে এক সহমর্মী চরিত্র হিসেবে দেখানো হয়েছে। এটা ‘স্লিপিং বিউটি’তে যে ভিলেন তার থেকে অনেকটাই আলাদা। এই চরিত্রে (প্রিনসেস অরোরা) অভিনয় করছেন এলি ফ্যানিং। 

 ‘ম্যালফিসেন্ট: মিসট্রেস অব ইভেল’ ছবির পোস্টার। ছবি: গুগল

এলির সঙ্গে কাজ করার প্রসঙ্গে জোলি বলেন, ‘আমাদের দু’জনের চারপাশের পুরুষদের থেকে শেখা ও ভালোবাসার প্রয়োজন আছে।  আমার মনে হয় অল্পবয়সী মেয়েদের কাছে একটা গুরুত্বপূর্ণ মেসেজ যাওয়ার দরকার আছে। তাদের উদ্দেশে আমি বলি, নিজেদের শক্তি খুঁজে বের কর। কিন্তু তার সঙ্গে সঙ্গে তোমাদের চারপাশের পুরুষদের থেকেও শেখ, তাদের শ্রদ্ধা কর।’

তিনি আরো বলেন, নারীকেন্দ্রিক ছবিতে গুরুত্বপূর্ণ বিষয় হলো দুটো- নারীর হিরোইজম ও ভিলেন। এদুটি বিষয় নারীকেন্দ্রিক ছবিতে একেবারে অন্যভাবে প্রকাশ পায়, ঠিক যেমন পুরুষ হিরোইজমের ছবিতে সেটা আরেকভাবে প্রকাশ পায়।

ম্যালফিসেন্ট ছবি প্রসঙ্গে জোলি বলেন, ‘ছবিতে নারীরা খুব শক্তিশালী। কিন্তু যে ভিলেন, যে খারাপ, সেও একজন নারী। তাকে হারতেই হয়। এই সব নানারকম নারী চরিত্রের আনাগোনা আছে ছবিতে। কিন্তু আমি এটাও বলতে চাই যে এই সব নারী চরিত্রের সঙ্গে যে পুরুষ চরিত্র আছে তারাও অসাধারণ। সেটাও কিন্তু সমান গুরুত্বপূর্ণ।’ -এই সময়


মন্তব্য করুন

সাম্প্রতিক দেশকাল ই-পেপার

© 2019 Shampratik Deshkal All Rights Reserved. Design & Developed By Root Soft Bangladesh