রোববার,  ২৫ আগস্ট ২০১৯  | সময় লোডিং...
প্রকাশ : ১৪ আগস্ট ২০১৯, ১১:২০:০৭

ওজন কমাতে পানি

ডেস্ক রিপোর্ট
পানির অপর নাম জীবন। পানি পানে শরীরের সকল কোষ সজীব হয়। স্বাস্থ্য ভালো থাকে। পানি ওজন কমাতেও সাহায্য করে। চৈনিক চিকিৎসাবিদ্যা ও ভারতীয় সংস্কৃতি অনুযায়ী, এক গ্লাস কুসুম গরম পানি পান করে দিন শুরু করলে হজম সহজ হয়।
 
লাইফস্টাইল ও স্বাস্থ্যবিষয়ক ম্যাগাজিন রিডার্স ডাইজেস্টের এক প্রতিবেদনে কুসুম গরম পানি পানের উপকারিতার কথা বলা হয়েছে।
 
ওজন কমাতে
ওজন কমানো নিয়ে অনেকের দুশ্চিন্তার শেষ নেই। ডায়েট করেও ওজন কমানো সম্ভব হয় না। তবে ডায়েট ও ব্যায়ামের পাশাপাশি নিয়মিত কুসুম গরম পানি পান করলে ওজন কমে। সকালে ঘুম থেকে উঠে কুসুম গরম পানি এবং পাকা লেবুর রস মিশিয়ে পান করলে উপকার পাওয়া যায়। এটি ক্যালোরি পোড়ায়। এছাড়া এতে পেট ফাঁপা রোধ হয়।
 
টক্সিন দূর
কুসুম গরম পানি শরীর থেকে সকল বিষাক্ত পদার্থ দূর করে। শরীরের অভ্যন্তরীণ তাপমাত্রা বাড়িয়ে বিষাক্ত ও বর্জ্য পদার্থের নির্গমন করে এটি। কুসুম গরম পানির সাথে লেবুর রস মিশিয়ে নিতে পারেন।
 
সাইনাস পরিষ্কার হয়
অধিকাংশ মানুষের সাইনাসের সমস্যা আছে। সর্দি লেগে গেলে কুসুম গরম পানি পান করলে খুব কাজে আসে। ইনফেকশন সারাতেও তা কাজ করে।
 
দাঁতের যত্নে
দাঁতের যত্নে কুসুম গরম পানি উপকারি। ঠাণ্ডা পানি পান করলে অনেক সময় দাঁতের ফিলিং দ্রুত নষ্ট হয়ে যায়। খুব বেশি গরম পানি দাঁতের ক্ষতি করে। তাই দাঁত ভালো রাখতে কুসুম গরম পানি পান করুন।
 
হজমে সহায়ক
গরম পানির ভ্যাসো ডায়ালেটর বৈশিষ্ট্য রয়েছে। এটি রক্তনালিকাগুলোকে প্রসারিত করে এবং হজমে সহায়তা করে। সকালে খালি পেটে কুসুম গরম পানি পান করলে তা পরিপাকতন্ত্রকে উত্তপ্ত করে এবং এর আশেপাশের রক্তনালিকাগুলোকে সচল করে। এরপর খাবার খেলে সহজে হজম হয়।
 
কোষ্ঠকাঠিন্য দূর
প্রতিদিন সকালে কুসুম গরম পানি পান করে দিন শুরু করলে পরিপাকতন্ত্র সুস্থ থাকে। এটি কোষ্ঠকাঠিন্যের ঝুঁকি কমায়। পানির উত্তাপ অন্ত্রকে সচল রাখে এবং মলত্যাগ সহজ করে।
 
ব্যথা কমাতে
ঠাণ্ডা পানি পান করলে পেশী টানটান হয়।  অন্যদিকে গরম পানি পান করলে পেশীতে রক্ত চলাচল বাড়ে এবং পেশী শিথিল হয়।  জয়েন্টের ব্যথা থেকে শুরু করে পিরিয়ডের ক্র্যাম্প, সব ধরণের ব্যথা কমাতে কাজ করে গরম পানি।
 
রক্ত চলাচল স্বাভাবিক রাখে
গরম পানিতে গোসল করাটা যেমন রক্ত চলাচলের জন্য উপকারি, তেমনি গরম পানি পান করাটাও উপকারি। এতে রক্তচাপ নিয়ন্ত্রণে থাকে এবং হৃদযন্ত্র সুস্থ থাকে।
 

 

এই পাতার আরো খবর
সর্বশেষ সংবাদসর্বাধিক পঠিত

সম্পাদক: ইলিয়াস উদ্দিন পলাশ

প্রকাশক: নাহিদা আকতার জাহেদী

১০/২২ ইকবাল রোড, ব্লক এ, মোহাম্মদপুর, ঢাকা-১২০৭

Powered by orangebd.com