রোববার,  ২৫ আগস্ট ২০১৯  | সময় লোডিং...
প্রকাশ : ২৮ জুলাই ২০১৯, ১৬:০৭:৫১
নীরব ঘাতক হেপাটাইটিস

দেশে প্রতি বছরে মারা যাচ্ছে ২২ হাজার লোক

ডেস্ক রিপোর্ট
নীরব ঘাতক হেপাটাইটিস এর মতো মরণ ভাইরাসে আক্রান্ত হয়ে দেশে প্রতিবছর ২১-২২ হাজার লোক মারা যাচ্ছে। এই ভাইরাসে আক্রান্ত মানুষের সংখ্যা মোট জনগোষ্ঠীর প্রায় ৬ শতাংশ। এমন ভয়ানক পরিস্থিতির মধ্যেই আজ দেশে পালিত হচ্ছে বিশ্ব হেপাটাইটিস দিবস।
এ ব্যাপারে অ্যাসোসিয়েশন ফর দ্য স্টাডি অব লিভার ডিজিজ-বাংলাদেশ-এর মহাসচিব ও বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিব মেডিক্যাল বিশ্ববিদ্যালয়ের অধ্যাপক ডা. মামুন আল মাহতাব (স্বপ্নীল) জানান, বাংলাদেশের মোট জনসংখ্যার ৫.৫ শতাংশ মানুষ হেপাটাইটিস ‘বি’ এবং দশমিক ৬ শতাংশ ‘সি’ ভাইরাসে আক্রান্ত। সারা বিশ্বে এ রোগে আক্রান্ত মানুষের মধ্যে ২.৫ শতাংশ বাংলাদেশি পাসপোর্টধারী। এ ছাড়া প্রায় ৩২ শতাংশ মানুষ জীবনে কোনো না কোনোভাবে এই ভাইরাসে আক্রান্ত হয়েছেন। বাংলাদেশের প্রাপ্তবয়স্ক মানুষের মধ্যে ৪০ শতাংশ হেপাটাইটিস ‘বি’তে আক্রান্ত হন। শিশুদের এক বছর বয়স হতে না হতেই প্রায় ১৬ শতাংশ ক্ষেত্রে এ রোগে আক্রান্ত হওয়ার ঝুঁকি থাকে, ১৫ বছর বয়স পর্যন্ত আক্রান্ত হওয়ার ঝুঁকি থাকে প্রায় ১৮ শতাংশের। এর মধ্য থেকেই বছরে ২২ হাজার ৩৩৬ জনের মৃত্যু ঘটে। যদিও বিশ্ব স্বাস্থ্য সংস্থার মতে এই সংখ্যা ২১ হাজার ৫০০ জন।
অধ্যাপক মামুন বলেন, অনেকটা দেরিতে হলেও দেশে হেপাটাইটিসের চিকিৎসা এখন বিশ্বমানে পৌঁছেছে। এখানে অনেক ধরনের ওষুধও পাওয়া যাচ্ছে। আন্তর্জাতিক ক্ষেত্রে আমাদের গবেষণা এখন স্বীকৃতি পেয়েছে। সরকারি পর্যায়েই নীতিনির্ধারণে কার্যকর পদক্ষেপ নেওয়া হয়েছে। বিশেষ করে ২০৩০ সালের মধ্যে দেশ থেকে হেপাইটাইটিস নির্মূলের পথে সরকার এগিয়ে যাচ্ছে। এর অংশ হিসেবে ২০২৫ সালের মধ্যে হেপাইটিস ‘বি’ ভাইরাসের প্রকোপ ৫০ শতাংশ ও ‘সি’র প্রকোপ ৩০ শতাংশ কমিয়ে আনার লক্ষ্যে গত সপ্তাহে স্বাস্থ্য অধিদপ্তরের উদ্যোগে একটি কর্মপরিকল্পনা প্রণয়ন করা হয়েছে।
 
এই পাতার আরো খবর
সর্বশেষ সংবাদসর্বাধিক পঠিত

সম্পাদক: ইলিয়াস উদ্দিন পলাশ

প্রকাশক: নাহিদা আকতার জাহেদী

১০/২২ ইকবাল রোড, ব্লক এ, মোহাম্মদপুর, ঢাকা-১২০৭

Powered by orangebd.com