কক্সবাজার সাগর তীরে উঁচু স্থাপনা নয়: প্রধানমন্ত্রী

ফাইল ছবি

ফাইল ছবি

প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা কক্সবাজার সমুদ্রের তীরে উচ্চ-স্থাপনা নির্মাণ না করার জন্য সংশ্লিষ্ট কর্তৃপক্ষকে নির্দেশ দিয়েছেন। আমরা সমুদ্রের তীর ঘেঁষে উচ্চ-স্থাপনা নির্মাণে কোনো প্রকার অনুমতি না দিতেও তিনি নির্দেশ দেন।

বুধবার (১৯ ফেব্রুয়ারি) সকালে তেজগাঁওস্থ কার্যালয়ে (পিএমও) কক্সবাজার এলাকায় নির্মাণাধীন তিনটি স্পেশাল ট্যুরিজম পার্কের (বিশেষ পর্যটন উদ্যান) মাস্টার প্ল্যান অবলোকনকালে এ নির্দেশ প্রদান করেন তিনি।

বাংলাদেশ অর্থনৈতিক অঞ্চল কর্তৃপক্ষকে (বেজা) মহেশখালীতে সোনাদিয়া ইকো-ট্যুরিজম পার্ক, টেকনাফ উপজেলায় নাফ ট্যুরিজম পার্ক (এনএএফ) এবং সাবরং ট্যুরিজম পার্ক স্থাপনের দায়িত্ব দেওয়া হয়েছে।

ভূমিকম্প, ঘূর্ণিঝড় এবং জলোচ্ছ্বাসের মতো দুর্যোগ সহনশীল করে ট্যুরিজম পার্কের বিভিন্ন স্থাপনা নির্মাণ এবং এ অঞ্চলের প্রাকৃতিক সৌন্দর্য অক্ষুন্ন রেখেই ট্যুরিজম পার্ক নির্মাণ করার আহ্বান জানান প্রধানমন্ত্রী।

তিনটি পার্কের মধ্যে প্রধানমন্ত্রী সাবরং ট্যুরিজম পার্কটি শুধু বিদেশিদের জন্যই নির্মাণের নির্দেশনা দেন। তিনি বলেন, এটি এমনভাবে নির্মাণ করতে হবে যাতে অন্যান্য দেশের পর্যটকেরা এর প্রতি আকর্ষিত হয় এবং প্রাকৃতিক সৌন্দর্য উপভোগ করতে এখানে আসে।

নাফ ট্যুরিজম পার্কের বিষয়ে শেখ হাসিনা আগামী তিন বছরের মধ্যে এর নির্মাণ কাজ সম্পন্ন করার জন্য সংশ্লিষ্টদের নির্দেশনা দেন। 

সোনাদিয়ায় দেশের প্রথম ইকো ট্যুরিজম পার্ক নির্মাণের জন্য ইতোমধ্যে বেজা ‘মাহিন্দ্র কনসালটিং ইঞ্জিনিয়াসর’ এবং ‘ডেভকন কনসালটেন্টস লিমিটেডকে’ পরামর্শক প্রতিষ্ঠান হিসেবে নিযুক্ত করা হয়েছে। প্রতিষ্ঠানগুলো প্রধানমন্ত্রীকে আশ্বাস দিয়ে জানায়, আগামী ২৪ মাসের মধ্যেই এখানে পর্যটকরা ভ্রমণ করতে পারবেন এবং পার্কটিকে সম্পূর্ণ রুপ দিতে নয় বছর সময় লাগবে। বাসস

মন্তব্য করুন

সাপ্তাহিক সাম্প্রতিক দেশকাল ই-পেপার পড়তে ক্লিক করুন

© 2020 Shampratik Deshkal All Rights Reserved. Design & Developed By Root Soft Bangladesh