রোববার,  ১৮ আগস্ট ২০১৯  | সময় লোডিং...
প্রকাশ : ০৫ আগস্ট ২০১৯, ১৫:০৬:১৩

কোরবানির সুস্থ গরু চিনবেন যেভাবে

ডেস্ক রিপোর্ট
ঈদুল আজহার আর মাত্র কয়েকদিন বাকি। গরু কেনার ধুম পড়ে যাবে দু একদিনের মধ্যেই। গরু কিনতে গেলে অনেকেই সুস্থ ও অসুস্থ গরুর পার্থক্য বুঝতে পারেন না। দেখা যায় অসুস্থ গরু কিনে বাড়ি ফেরে তারা। তাই কেনার আগে কিছু বিষয় জানা জরুরি।
 
১. গরু কিনতে গেলে দেখবেন গরুর শরীর অস্বাভাবিক ফোলা কিনা।  অসুস্থ গরুর শরীর অনেক বেশি ফোলা দেখাবে এবং নখ দ্বারা চাপ দিলে গর্ত হয়ে যাবে, যা পূর্বের জায়গায় ফিরে যেতে সময় নেবে।
২.  অসুস্থ গরু রাসায়নিক বা ওষুধের প্রতিক্রিয়ার ফলে দ্রুত শ্বাসপ্রশ্বাস নেবে, মনে হবে যেন হাঁপাচ্ছে। তাই গরু কেনার সময় সতর্ক থাকুন।
৩. সুস্থ গরু সাধারণত চটপটে হয়ে থাকে এবং দ্রুত সাড়া দেয় কিন্তু অসুস্থ গরু চুপচাপ থাকবে তেমন সাড়া দেবে না ঝিমাবে।
৪. অতিরিক্ত স্টেরয়েডের কারণে পশুর মুখ দিয়ে প্রতিনিয়ত লালা ঝরবে, খেতে চাইবে না কিন্তু সুস্থ পশুর সামনে খাবার ধরলে জিহ্বা দিয়ে টেনে নেবে নতুবা জাবর কাটবে।
৫. সুস্থ গরু কান ও লেজ দিয়ে দ্রুত মশা মাছি তাড়াবে কিন্তু অসুস্থ গরু তা করবে না।
৬. সুস্থ গরুর নাকের উপরের অংশ ভেজা বা বিন্দু বিন্দু পানি জমে থাকবে আর অসুস্থ পশুর নাক থাকবে শুকনো।
৭. গরুর শরীরে হাত দিয়ে তাপমাত্রা স্বাভাবিকের চেয়ে বেশি মনে হলে বুঝতে হবে গরুটি অসুস্থ।
৮. হাটে যাওয়ার পর যেসব গরুর চেহারা স্বাভাবিক উষ্কখুষ্ক চামড়ার উপর দিয়ে কয়েকটি হাড় বেরিয়ে থাকে সেসব গরু বেশি নিরাপদ। আর বেশি চকচকে গরু-ছাগল বেশি ঝুঁকিপূর্ণ।
 
জেনে নেওয়া ভালো
পশু বিশেষজ্ঞরা কোরবানির জন্য দেশি গরু নির্বাচনের প্রতি গুরুত্ব দিয়েছেন কারণ চাইলেও দেশি গরু বেশি মোটাতাজা করা সম্ভব নয়। আর কোরবানির পর পশুর রক্ত, হাড় বা উৎছিষ্ট অংশ মাটির নিচে গর্ত করে রাখার পরামর্শ দেন নতুবা তা পরিবেশের প্রতি মারাত্মক বিরূপ প্রভাব ফেলবে।

 

এই পাতার আরো খবর
সর্বশেষ সংবাদসর্বাধিক পঠিত

সম্পাদক: ইলিয়াস উদ্দিন পলাশ

প্রকাশক: নাহিদা আকতার জাহেদী

১০/২২ ইকবাল রোড, ব্লক এ, মোহাম্মদপুর, ঢাকা-১২০৭

Powered by orangebd.com