রোববার,  ২৫ আগস্ট ২০১৯  | সময় লোডিং...
প্রকাশ : ১০ আগস্ট ২০১৯, ১১:৪৪:৩৯

জিআরপি থানায় গণধর্ষণ: ওসিসহ ৫ জনের বিরুদ্ধে মামলা

প্রতিনিধি, খুলনা
খুলনা জিআরপি (রেলওয়ে) থানা হাজতে নারী নির্যাতন ও সংঘবদ্ধ ধর্ষণের অভিযোগ ওঠার ছয়দিন পর মামলা দায়ের করা হয়েছে। আদালতের নির্দেশে থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা (ওসি) উছমান গণি পাঠানসহ পাঁচ পুলিশ সদস্যের বিরুদ্ধে দায়ের করা হয় মামলাটি।
ভুক্তভোগী সেই নারী বাদী হয়ে গতকাল শুক্রবার রাতে জিআরপি থানায় মামলাটি দায়ের করেন। মামলা নং ০৩।  
রেলওয়ে পুলিশের কুষ্টিয়া সার্কেলের এএসপি ফিরোজ আহমেদ জানান, মামলায় ওসি উছমান গণি, ঘটনার রাতের ডিউটি অফিসার ও অজ্ঞাত তিন পুলিশ সদস্যকে আসামি করে ওই নারী মামলা করেছেন। খুলনার সিনিয়র জুডিশিয়াল ম্যাজিস্ট্রেট আদালতের নির্দেশে ‘হেফাজতে নির্যাতন ও মৃত্যু নিবারণ আইন ২০১৩’ অনুসারে মামলাটি রেকর্ড করা হয়েছে।
গত ২ আগস্ট রাতে এক নারীকে জিআরপি থানার মধ্যে ওসিসহ পাঁচ পুলিশ সদস্য গণধর্ষণ ও মারধর করেন বলে ওই নারী আদালতে অভিযোগ করেন। ৩ আগস্ট আদালত তার জবানবন্দি গ্রহণ করেন এবং তার মেডিকেল পরীক্ষার জন্য খুলনা মেডিকেল কলেজ হাসপাতালে পাঠানোর নির্দেশ দেন
আদালতের নির্দেশে ৫ আগস্ট তার মেডিকেল পরীক্ষা সম্পন্ন হয়। তবে পরীক্ষার রিপোর্ট এখনো তৈরি হয়নি।
এ ঘটনায় পাকশী রেলওয়ে জেলা পুলিশের পুলিশ সুপার মোহাম্মদ নজরুল ইসলামের নির্দেশে তিন সদস্যের তদন্ত কমিটি গঠন করা হয়েছে। তদন্ত কমিটির প্রধান হলেন কুষ্টিয়া রেলওয়ে সার্কেলের সহকারী পুলিশ সুপার ফিরোজ আহমেদ এবং সদস্যরা হলেন কুষ্টিয়া রেলওয়ে সার্কেলের ডিআইও-১ পুলিশ পরিদর্শক (নিরস্ত্র) শ ম কামাল হোসেইন ও দর্শনা রেলওয়ে ইমিগ্রেশন ক্যাম্পের পুলিশ পরিদর্শক (নিরস্ত্র) মো. বাহারুল ইসলাম। 
এ তদন্ত কমিটি গত মঙ্গলবার তদন্ত শুরু করে এবং বৃহস্পতিবার জেল গেটে ভিকটিমের জবানবন্দি গ্রহণ করে। 
 
এই পাতার আরো খবর
সর্বশেষ সংবাদসর্বাধিক পঠিত

সম্পাদক: ইলিয়াস উদ্দিন পলাশ

প্রকাশক: নাহিদা আকতার জাহেদী

১০/২২ ইকবাল রোড, ব্লক এ, মোহাম্মদপুর, ঢাকা-১২০৭

Powered by orangebd.com